« নীড়পাতা | ওয়েব ভিত্তিক ইউনিকোড বাংলা ইনপুট সিস্টেম » | ভিস্তা এবং ফ্লাশ ড্রাইভের উথান » | ব্লগস্পটের জন্য বাংলা টেমপ্লেট » | ভিস্তা খেলো সব মেমোরী! » | ব্লগার ডট কম বেটা » | প্রযুক্তি ব্লগ »

নিজের ঢোল নিজে পিটাই: আমার করা বাংলা কিছু এপ্লিকেশন

লোকালাইজেশন নিয়ে জড়িত বেশ অনেক দিন ধরে। অঙ্কুরের সাথে বেশ কিছুদিন জড়িত ছিলাম। কিন্তু অনুবাদ করা পোষাতো না আমাকে দিয়ে। অল্প স্বল্প কিছু স্ট্রিং অনুবাদ করেছি, কিন্তু এরচেয়ে বেশী কিছু করা হয় নাই।

অনেক আগে বাংলা ডাটাবেজ নিয়া কিছু কাজকর্ম্ম করছিলাম। নিতান্তই ছোটবেলার গল্প। সিআইএইচের কবলে পড়ে তার কিছুই আর অবশিষ্ট নেই। কিছু উল্লেখযোগ্য টুলস এখানে তুলে ধরতে চাই।

একটা বাংলা টেকস্ট থেকে ভয়েস কনভার্টার বানিয়েছিলাম। টেকস্ট বলাটা ভুল হবে, বাংলা সংখ্যা থেকে ভয়েস। একটা সংখ্যা ইনপুট দিলে আমার ভ্যাদভ্যাদে গলায় সেটা শুনতে পাবেন। তবে একই কনসেপ্ট ব্যবহার করে এটাকে বাংলা টেকস্ট থেকে কনভার্টার হিসেবেও ব্যবহার করা যাবে। এটা আমার হোম পেইজে পাবেন, প্রোগ্রামিং > সফটওয়্যার এর নীচে।

একটা ছোট্ট কনভার্টার বানিয়েছিলাম বিজয়ের টেকস্ট থেকে ইউনিকোড করার জন্য। সেটা নিয়ে একটা পোস্টও দিয়েছিলাম। ডেক্সটপ এপ্লিকেশনের শক্তি অনেক বেশী থাকে তাই এটাকে খুব সহজে এক্সটেন্ড করে কাজের জিনিস বানানো যেতে পারে। কিন্তু অনেকগুলো কনভার্টারের ধাক্কায় আমি আগ্রহ হারিয়ে ফেলি। এখন অভ্রর একটা কনভার্টার পাবলিশ করেছে। সেটাও বেশ ভালই মনে হল।

একটা প্রজেক্টে কাজের অংশ হিসেবে একটা কিবোর্ড ইনপুট আর কনভার্টার বানিয়েছি সম্প্রতি। জাভাস্ক্রিপ্ট ভিত্তিক বলে যে কারো জন্য ব্যবহার করা সহজ হবে। বিভিন্ন ফিচার যুক্ত এপ্লিকেশনটি ব্যবহার করতে ভালই হয়েছে। এটা নিয়ে আরো জানতে এব্যাপারে আমার পোস্টটি পড়ুন।

বাংলা লেখালেখি এবং প্রযুক্তিগত বিষয়ে আগ্রহ থাকা স্বত্তেও খুব বেশী কাজ করা হয়ে ওঠেনি এসব নিয়ে। তারপরও আমার দুই পয়সা আপনাদের সাথে ভাগাভাগি করলাম। কারও কাজে আসলে ভাল লাগবে।

(প্রথম প্রকাশ: সামহোয়্যার ইন ব্লগ ২০০৬-০৯-২০)

Labels:

"মাথা বেচে খাই যারা" বলতে coder-দের বুঝিয়েছ। তাদের পক্ষ থেকে (ও তাদের উদ্দেশ্যে) ব্লগ করছো - খুবই laudable. কিন্তু একটা গ্রুপ indirectly/inadvertently উপেক্ষিত থেকে যাচ্ছে। এরা হল documentation
writer. এদের অবস্থান খুবই গুরুত্বপুর্ণ - ঠিক coder আর end user-এর মাঝামাঝি।

উদাহরণস্বরূপ, তোমার unicode converter-টা open source. আরেকজন coder এটা দেখে কি হচ্ছে বুঝতে পারবে, একজন end user (কি হচ্ছে না বুঝেই) এটা ব্যবহার করতে পারবে, কিন্তু একজন end user যদি বুঝতে চায় কি হচ্ছে, সেখানেই প্রয়োজন documentation writer-এর।

অনেক নবীন ব্যবহারকারীই unicode ব্যবহার করতে গিয়ে এর নিয়ম কানুন সম্বন্ধে নানাবিধ প্রশ্ন করে। যেমন, কার-এর পরে চন্দ্রবিন্দু দিতে হবে কেন? এগুলোর উত্তর কে দিবে? এমন ওয়েব সাইট কি আছে? "বাংলা ইউনিকোড কি ও
কেন" এমন টাইটেলের বই বের হলে একুশের বইমেলায় সেটার কাটতি একেবারে খারাপ হবে বলে মনে হয় না।

আমার উদ্দেশ্য আসলে ছিল প্রোগ্রামীং ব্লগই করা। কেননা বাংলায় এরকম ব্লগ আমি আর দেখিনি। অথচ ইংরেজীতে ভুরি ভুরি। বিষয়টা বাংলাতে উপেক্ষিতই থেকে যাচ্ছে। সেই তাড়না বোধ থেকে এর উৎপত্তি।

তবে ডকুমেন্টেশন রাইটারদের কথাটা আসলেও গুরুত্বপূর্ণ। ইংরেজীতেও আমি এরকমটা দেখিনি। হয়ত আমার আগ্রহই হয়নি খুঁজে দেখার।

আপনার পয়েন্টটা ভেবে দেখবার মত। হয়ত আমি আমার ব্লগের সামারীতে 'ডকুমেন্টেশন রাইটার' কথাটা ঢুকিয়ে দেব। আর এই বিষয়াটার উপরেও কিছু পোষ্ট দেবার ইচ্ছে রইল।

ধন্যবাদ আপনাকে।

এই লেখার লিংক

Create a Link